আইফোন কিনতে কন্যা সন্তান বিক্রি!

0
218

আইফোনমাত্র ১৮ দিন বয়স কন্যা শিশুটির। নতুন আইফোনের জন্য শিশুটির মা-বাবা তাকে তিন হাজার ৫৩০ মার্কিন ডলারে বিক্রি করে দিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। বাংলাদেশি মুদ্রায় তা দুই লাখ টাকার বেশি। চীনের ফুজিয়ান প্রদেশে এ ঘটনা ঘটে।
চীনের পিপলস ডেইলি অনলাইনে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে জানানো হয়, সামাজিক যোগাযোগের ওয়েবসাইট কিউকিউ ব্যবহার করে শিশু বিক্রির জন্য ক্রেতা খুঁজে বের করেন শিশুটির বাবা দুয়ান। এই অর্থ দিয়ে দুয়ান একটি আইফোন ও একটি মোটরবাইক কিনতে চেয়েছিলেন বলে অভিযোগ রয়েছে।
শিশুটির মা শিয়াও মেই বিভিন্ন জায়গায় খণ্ডকালীন কাজ করেন আর দুয়ান অধিকাংশ সময় ইন্টারনেট ক্যাফেতে কাটান। ২০১৩ সালে তাঁদের দেখা হয়। পরে বিয়ে করেন তাঁরা। বিয়ের সময় দুজনের বয়স ছিল ১৯ বছর। শিশুটির জন্মের পর তাঁরা অর্থ-সংকটে পড়েন। শিশুটিকে বিক্রি করে দেওয়ার পরিকল্পনা করেন দুয়ান। শিশুটি বিক্রি হওয়ার পর মা শিয়াও মেই পালিয়ে যান। পরে পুলিশ তদন্ত করে অবৈধভাবে সন্তান বিক্রির জন্য তাঁকে আটক করে।
মেই বলেন, ‘আমাকেও দত্তক নেওয়া হয়েছিল। আমার এলাকায় অনেকেই সন্তানকে লালন-পালনে অন্যের কাছে পাঠায়। এটা অবৈধ আমি জানতাম না।’
দুয়ানকে তিন বছরের কারাদণ্ড ও মেইকে আড়াই বছরের স্থগিত দণ্ডাদেশ দেওয়া হয়েছে।
প্রতিবেদনে শিশুটির ক্রেতার পরিচয় গোপন রেখে বলা হয়েছে, ক্রেতা তার বোনের জন্য শিশুটিকে কিনেছে। যেহেতু শিশুটির মা-বাবা তার ভরণপোষণে অক্ষম, তাই শিশুটি বর্তমানে ওই ক্রেতার আত্মীয়ের কাছে রয়েছে। ক্রেতা শিশুটিকে কেনার পর নিজে পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিল বলেও প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে।
চীনে আইফোন দারুণ জনপ্রিয়। নতুন আইফোন বাগাতে অনেক সময় অদ্ভুত কাণ্ড করে বসে অনেকে। এর আগে ২০১৩ সালে চীনের এক দম্পতির বিরুদ্ধে আইফোন ও বিলাসী পণ্য কিনতে কন্যাশিশু বিক্রির অভিযোগ আনা হয়েছিল।

[the_adid=”1778″]

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here