পাঁচটি বিষয় আপনাকে জানতে হবে একটি সঠিক ইউ পি এস কিনতে

0
635

আস সালামু আলাইকুম, আশা করি সবাই ভাল আছেন। তবে কেউ কেউ কিছু প্রবলেম এ আছেন। যেমন, কয়েকদিন পর পর কম্পিউটারের ভিতরে বিভিন্ন সমস্যা দেখা দিচ্ছে। আর কখনো বা হাজার টাকার মূল্যবান মূল্যবান সময় কে হারিয়ে ফেলতেছেন কারেন্ট না থাকার কারণে। মনে করুন আপনার এখন ১০০০টাকার একটা কাজের অর্ডার আছে। যেটা আপনি কয়েক ঘন্টা সময়ের মধ্যে করে জমা দিতে হবে। কিন্তু লোড শেডিং আপনার কষ্টটা বুঝবে না। কারণ সময় হলে আপনার কথা আর শোনার টাইম নাই লোড শেডিং এর। একবার কারেন্ট চলে গেলেই ১ঘন্টার আগে আর আসবে না। এছাড়াও আরও বিভিন্ন কারণে কারেন্ট চলে যেতে পারে ।যেমন, ট্রান্সফরমার জ্বলে যাওয়া। লাইন ছিড়ে যাও, কোথাও আগুন লাগা ইত্যাদি। এছাড়া হঠাত করে কারেন্ট এভাবে চলে যাওয়াও কিন্তু আপনার কম্পিউটারের জন্য ক্ষতির কারণ। অনেক সময় হার্ডডিস্ক ও চলে যেতে পারে। তাই এই সমস্যা সমাধানের জন্য আমাদের উচিত হচ্ছে আনইন্টারেপটেবল পাওয়ার সাপ্লাই ব্যবহার করা।  আর এটাই তো ইউ পি এস(আনইন্টারেপ্টেবল পাওয়ার সাপ্লাই)।

কিন্তু আপনাকে একটি ভাল ইউ পি এস কিনতে হলে অবশ্যই ৫টি বিষয় সম্পর্কে ভেবে এরপর সঠিক ইউপিএস টি কিনতে হবে।

আপনার কয়টি আউটলেট দরকার?

uninterruptiblepowersupply1

আপনার ইউপি এস কেনার আগে আপনাকে ভাবতে হবে যে, আপনি সর্বোচ্চ কতটি ডিভাইসে প্লাগিন করতে চান। সাধারণত ছোট বা হোম অফিসের জন্য একটি রাউটার মডেম এবং কিছু মিনি সার্ভারের জন্য অল্প পাওয়ার সাপ্লাই প্রয়োজন হয়। কিন্তু অনেক বড় ব্যবসার জন আপনার আরও বেশি পাওয়ার এর প্রয়োজন হবে। সাধারণভাবেই আপনি যদি যতটুকু পাওয়ার দরকার তার দিগুন পাওয়ারের ইউপিএস কিনেন তাহলে ভবিষ্যতে অনেক সুবিধা পাবেন।

যাইহোক একটা কথা মাথায় রাখবেন যে, ইউপিএস ইউনিট শুধু মাত্র কিছু পোর্ট এর সুরক্ষা প্রদান করে। আউটলেটগুলো যদি ব্যাটারি চালিত হয় তাহলে এর পোর্ট সংখ্যা বেশি হবে। সস্তা ইউপিএসগুলো মূলত ব্যাটারি ব্যাকাপের জন্য ছয়টি আউটলেটস ব্যবহৃত হয়। বাকিগুলোতে কোনো পাওয়ার থাকে না।

আপনি যদি তারযুক্ত ডাটা কানেকশন ব্যবহার করেন , তাহলে ইউপিএস আপনার যা এই তারের কানেকশনেও আপনার  ডিভাইসকে সুরক্ষা প্রদান করবে। এটা পুরাতন মডেম বা নিউ ইথারনেট কানেকশন দুটোর ক্ষেত্রেই একই কাজ করবে।

আপনার ডিভাইসের জন্য কি পরিমাণ পাওয়ার দরকার?

শুধু আউটলেট নয়, আপনাকে জানতে হবে আপনার ডিভাইসগুলোর জন্য আপনার ঠিক কতটা পাওয়ারের প্রয়োজন। যদি ডিভাইসগুলোর ইউপিএস এস যে পাওয়ার উৎপাদন করে তার থেকেও বেশি পাওয়ারের দরকার হয় তাহলে কিন্তু ডিভাইসগুলো নষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।এমনকি ব্যাটারিতে চার্জ থাকলেও হয়ত কোনো ডিভাইসই চলবে না। এটা ঠিক কম্পিউটার পাওয়ার সাপ্লাই এর মতই। ভোল্টেজ কম থাকলে যেমন আমরা সেদিন কম্পিউটার অন করতে পারি না  । ঠিক তেমনি ইউপিএস এর পাওয়ার কম থাকলেও কম্পিউটার অন হবে না।

আপনি চাইলে ওয়াটমিটার দিয়ে চ্যাক করে দেখতে পারেন যে আপনার কম্পিউটারের জন্য আসলে কত ওয়াট পাওয়ারের দরকার। সবকিছুর পাওয়ার চেক করে মোট পাওয়ার বের করতে হবে। ধরুন আপনি কম্পিউটার এর জন্য ইউপিএস কিনবেন। তাহলে অবশ্যই সিপিইউ এবং মনিটরের পাওয়ার যোগ করে মোট পাওয়ার বের করে তার থেকে বেশি ওয়াটের ইউপিএস কিনবেন।

ভোল্টেজ এর মাধ্যমে কারেন্ট কিভাবে বের করতে হয় সেটা আশা করি সবাই জানেন। না জানলে গুগলে সার্চ করলেই পেয়ে যাবেন। পাওয়ার সাপ্লাই এর পরিমান সাধারণত কোনো ডিভাইসের উপরে VA( voltage amps) আকারে লিখা থাকে। কিন্তু দূর্ভাগ্যজনক হলেও সত্য যে, VA কে কোনো বোধগম্য একক যেমন ওয়াটে পরিবর্তন করা যাবে না যদি ইউপিএস এর পাওয়ার ফেক্টর রেশিও জানা না থাকে। তবে মোটামুটি আনুমানিক একটা হিসাব করা হয় VA এবং watt এর মধ্যে। উদাহারণস্বরুপ ধরুন cyber power যদি ১৫০০VA হয় তাহলে এটা ১৫০০ওয়াটের মত পাওয়ার সর্বারহ করতে পারে যদি এর পাওয়ার ফেক্টর ১ এর কাছাকাছি হয়। যদি পাওয়ার ফেক্টর কম হয় তাহলে পর্যাপ্ত পাওয়ার সাপ্লাই করতে পারে না। তাই আপনি যদি ইউপিএস কিনতে চান তাহলে অবশ্যই ২০% বার তারও বেশি VA যুক্ত ইউপিএস কিনবেন।

আপনার কতক্ষণ ব্যাটারি চালানো প্রয়োজন?

upsgraph

ইউপিএস কেনার আগে আপনি এটা ঠিক করুন যে, আপনার ইউএস কতক্ষন ব্যাকাপ দিলে আপনি সন্তুষ্ট? যতবেশি ব্যাকাপ তত বেশি টাকা লাগবে ইউপিএস কিনতে। তাই আপনার যতটুকু হলেই চলবে ঠিক ততটুকু পাওয়ারের ইউপিএস কিনুন। অনেকেই ইউপিএস কিনেন তাও আবার এমন যে, কারেন্ট গেলে যেন যেই কাজগুলো করতেছিল ঐগুলি শুধুমাত্র সেভ করা এবং নিরাপদ ভাবে সাটডাউন দেয়া যায়। অনেকেই আবার চান যে কারেন্ট যাওয়ার পরও কয়েক ঘন্টা যেন কাজ করতে পারেন। তাই আপনার কোন ধরণের দরকার তা নির্ধারণ করুন।

এরপর আপনি উইন্ডোজকে ভালভাবে কনফিগার করে দিতে পারলে আপনার ইউপিএস এর যখন পাওয়ার অনেক কমে যাবে তখন কম্পিউটার অটোমেটিক অফ হয়ে যাবে। যদি আপনি চান তবে।

আপনি কি কি ফিচার চাচ্ছেন?

upsmanagement

আপনি মনে করতে পারেন যে, ইউপিএস এর ফিচার খুবই স্বাভাবিক। ডিভাইস সংযুক্ত করা ,যখন কারেন্ট চলে যাবে তখন ব্যাটারি থেকে সাপ্লাই দেয়া। তাই না??

কিন্তু না। এমন কি সাধারণ ব্যবহারকারীর জন্যই রয়েছে, ডিস্কানেক্টিং ব্যাটারী নোটিফিকেশন , ইউএসবি কানেক্টিভিটি এবং সফটওয়্যার স্যুট যেটা কম্পিউটার এর সেটিংস এর সাথে সমন্বয় সাধন করে এবং কতটুকু পাওয়ার আছে ইত্যাদি ফিচার।

এছাড়া প্রোফেশনা ব্যবহার কারীদের জন্য রয়েছে এগুলোর সাথে ব্যাটারী চার্জের উপর ভিত্তি করে LED রিপোর্ট, কত মিনিট চলবে , আর গরম ব্যাটারি swappable ইত্যাদি ফিচার।

এই ইউপিএস নিয়ে অতো ভেবে মাথা নষ্ট করে দরকার নেই। উপরে যেই কথাগুলো বলা হল শুধু এইগুলো যাচাই  করে আপনি একটি ভাল মানের ইউপিএস কিনে ফেলুন আর নিশ্চিন্তে ব্যবহার করুন।

তো আজকের মত এ পর্যন্তই। লেখায় কোনো ভুল হয়ে থাকলে ক্ষমার দৃষ্টীতে দেখবেন। স্পেলিং মিস্টেক হলে কষ্ট করে বুঝে নিবেন।

দেখা হবে পরবর্তী টিউনে। ততক্ষণ পর্যন্ত… ভাল থাকুন, সুস্থ থাকুন। প্রযুক্তিকে ভালবাসুন। আর প্রযুক্তির সাথেই থাকুন।

আল্লাহ হাফিজ।

ফেসবুকে আমি 

Please comment Here (ভাল লাগলে কমেন্ট করুন)