আপনার সন্তান বা ছোট ভাই কি coc তে আসক্ত? আজই ব্লক করুন coc আপনার রাউটার থেকে

0
893

আস সালামু আলাইকুম, আশা করি সবাই ভাল আছেন। ভাল থাকুন নিজে এবং ভাল রাখুন আপনার চারপাশ এটাই চাই। আর তাই আজকে এমন একটি টিউন নিয়ে হাজির হয়েছি যেটা করলে হয়ত আমি অনেকের চোখের কাটা হয়ে যাবো। আর অনেকের কাছেই আজকের আমার এই টিউনটি ভাল লাগবে। বিশেষ করে coc পাগল যারা আছে তারা আজকে থেকে আমাকে ঘৃণা করা আরম্ভ করে দিবে। আর যারা অভিভাবক আছেন তারা হয়ত কিছুটা উপকৃত এবং খুশি হবেন। আসলে আমি পরোক্ষভাবে coc পাগলদেরও মানসিক রোগ মুক্তির একটা চেষ্টা চালাচ্ছি। যদিও এখন হয়ত বুঝবে না। বুঝবে কিছু দিন পর। আজকে আমি দেখাবো কিভাবে একটি রাউটার থেকে আজীবনের জন্য coc কে ব্লক করে দিবেন। মানে ঐ রাউটার দিয়ে যারা ইন্টারনেট ব্যবহার করবে তারা কেউ ই আর কখনো coc খেলতে পারবে না। কখনও বললে ভুল হবে। আপনি যতদিন coc এর সার্ভার বন্ধ করে রাখবে রাউটারে ততদিন খেলতে পারবে না। অন করে দিলেই খেলতে পারবে।

coc নামক বাজে গেমসটা এই পর্যন্ত প্লেস্টোর থেকে ইনস্টল করা হয়েছে ৩কোটি ৯৮লক্ষ ৮১হাজার ৭৬বার । আর এর মধ্যে বাংলাদেশের প্লেয়ারদের গ্লোবাল রেঙ্ক হচ্ছে ৫নাম্বার। এইবার বুঝেন তাহলে অবস্থা। এগুলো আমি আন্দাজে বলতেছি না। প্রমাণ দিয়েই বলতেছি দেখে নিন।

 

আমি এই গেমস এর ব্যাপারে বলতে পারেন কিছুই  জানি না। আমি আমার লাইফে দুইবার এই গেমসটা ইনস্টল করেছিলা gems হ্যাক করা যায় কি না সেটা পরীক্ষার করার জন্য। আসলে আমি এই gems এর মানেই জানি না। তাহলে বুঝতেই পারতেছেন এই coc এর ব্যাপারে আমি কতটা জানি। মানে যারা coc খেলে আমি সব সময় তাদের থেকে দূরে থাকি। আমার ফ্রেন্ডরা যখন coc খেলে তখন আমি তাদের আশেপাশেও যাই না। গিয়ে জিজ্ঞাসাও করি না যে, দোস্ত এই gems এর কাজ কি বা টাউনহল কি বা ক্ল্যান কি বা জেমস , গোল্ড বা এলিক্সার টাই বা কি? কখনও এইগুলিও জিজ্ঞাসা করি না। কারণ আমি দেখেছি এইটা এমনই একটা গেমস যেটা আমার ফ্রেন্ডরা ক্লাস টাইমে ক্লাস বাদ দিয়েও খেলে। অনেকে সারারাত খেলে। তাই আমি এটা থেকে সব সময় দূরে থাকার চেষ্টা করি। আচ্ছা আমি তো এই গেমসের ব্যাপারে তেমন কিছুই জানি না বললাম তাহলে উপরে যেই জিনিগুলোর নাম বললাম, জেমস, এলিক্সার,গোল্ড, ক্ল্যান ইত্যাদি কিভাবে বললাম? অবশ্যই আপনার মনে প্রশ্ন জাগার কথা। আসলে ঐগুলী আমি উইকিপিডিয়া থেকে সার্চ করে মাত্র বের করেছি শুধু নাম গুলি আপনাদের সামনে বলার জন্য। হা হা হা। বর্ণনা টাও পড়ি নাই।

যাইহোক, গেমস না খেলার পিছনে আরেকটা বড় কারণ আছে। সেটা হচ্ছে আমি সাধারণত যেটা বলে থাকি যে, আমি অন্যের গেমস কেনো খেলবো? যেদিন নিজে একটা গেমস বানাতে পারবো সেদিন নিজের গেমস নিজে খেলবো…  হা হা হা। জানি না সেটা পারবো কি না। তবে আল্লাহ চাইলে সব পারেন। দেখা যাক কি হয়।

কাজের কথা বলি। গেমস খেলা যে, খারাপ তা কিন্তু নয়। তবে এমন কোনো গেমস কখনো খেলা উচিত নয় যেটা নেশা হয়ে যায়। বিশেষ করে যেই গেমসগুলোর কোনো শেষ লেভেল থাকে না। সেই গেমসগুলোই নেশা হয়ে যায়। যেমন, coc । জানিনা এর শেষ আছে কি না। আগেই বলেছি আমি এই বিষয়ে অজ্ঞ। তবে আমার ধারণা এর কোনো শেষ নেই। আর ঠিক একারণেই এই গেমসটা অনেকের নেশায় পরিনত হয়ে গেছে।  কারণ যেই গেমসটার লেভেল শেষ হয়ে যায়, তখন সেই গেমসের উপর আস্তে আস্তে তার আকর্ষণ কমতে থাকে। সর্বোচ্চ ১০বার খেলার পর সে সেটা বাদ দিয়ে দিতে পারে। কিন্তু coc এর মত গেমসগুলো তাদের নেশা হয়ে যায়। আর নেশাগ্রস্ত মানুষ যেমন, সব কিছু বাদ দিয়ে নেশাতে মত্ত হয়ে যায় ঠিক তেমনি হয়ত আপনার সন্তান বা আপনার ছোট ভাই বা আপনার প্রতিবেশিগুলো ঐ খেলায় এতটাই মত্ত হয়ে উঠেছে যে, আজ তাদের পড়ালেখার অবস্থা করুণ হয়ে গেছে। আর তাদের এই গেমস ফ্রীতে খেলার সুযোগও করে দিচ্ছেন আপনিই। আর তাদের জীবনের ক্ষতির পিছনে শুধু তারা দায়ী নয়। দায়ী আপনিও। তাই আসুন এই দায় থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য আজই আমরা সবার রাউটার থেকে coc এর সার্ভারগুলোকে ব্লক করে দেই। এতে আপনার রাউটারের উপর থেকে বাচ্চাদের যেমন চাপ কমে যাবে তেমনি টাকা খরচ করে খেলতে খেলতে coc খেলা অনেকাংশেই কমে যাবে বলে আশা করি। এখন বলতে পারেন এম্বির দাম আর কত? আরে ভাই কেউ যদি নিজে নিজের জীবনের ১২টা বাজায় তাহলে তো আর আপনার কিছু করার নেই। তবে অন্তত যদি আপনি সার্ভার টা ব্লক করে রাখেন তাহলে নিজে এর দায় থেকে তো বাঁচতে পারবেন। তাই না? আপনার যেই সন্তান এখনও এই খেলায় ঝুকে নাই। অন্তত সে টাকা দিয়ে এই গেমস অতটা খেলবে না। যতটা অন্যরা ফ্রীতে খেলে। যাইহোক, আপনি অভিবাবক হিসেবে এটা আপনার দায়িত্ব বলে আমি মনে করি। আপনি আমার সামনে মিষ্টি রেখে বলবেন বাবা এটা খেয়ো না। তাহলে কখনই আমি সেটা মানবো না। কারণ মিষ্টি আমার প্রিয় খাবার। আশা করি বুঝাতে পেরেছি যে কেন ব্লক করবেন। তো চলুন দেখা যাক কিভাবে আপনি coc সার্ভার অফ করবেন রাউটার থেকে। আমি আপাতত tp-link দেখাচ্ছি। কারণ আমি এইটা ছাড়া আর কোনো রাউটার এখনও ব্যবহার করি নাই। আশা করি সব রাউটারেই এই অপশন আছে। তো নিজেরা অন্যগুলোতে চেষ্টা করে দেখবেন।

কিভাবে ব্লক করবেন coc সার্ভারঃ

প্রথমেই ব্রাউজারের এড্রেসবার এ http://192.168.0.1 লিখে ইন্টার দিন। দেখুন আপনার টিপি লিংক রাউটারের কন্ট্রোল প্যানেলে ঢুকে গিয়েছে। এবার আপনি যদি আপনার নতুন রাউটার ব্যবহারকারী হন আর রাউটারের ডিফল্ট username আর পাসওয়ার্ড চেঞ্জ করে না থাকেন তাহলে username এ দিন admin আর পাসওয়ার্ড ও দিন admin । তাহলেই দেখবেন লগিন হয়েছে। ডিফল্ট পাসওয়ার্ড চেঞ্জ করে নিন। কারণ এটা সবাই জানে। কিভাবে চেঞ্জ করবেন সেটা নিচের ছবি দেখলেই আশা করি বুঝতে পারবেন,

যাইহোক, পাসওয়ার্ড চেঞ্জ করার কাজ শেষ। এবার আমরা coc সার্ভারকে রাউটার থেকে ব্লক করবো যেন কেউ সেটাকে এক্সেস বা ব্যবহার করতে না পারে। এক কথায় গেমস খেলতে না পারে। তো কি করতে হবে চলুন সেটা দেখে নিই। আমার মনে হয় স্ক্রিনশট দিলেই আপনারা ভাল বুঝবেন। তাই স্ক্রিনশট ই দিচ্ছি,

access control এ গিয়ে setup wizard এ যাওয়ার পর আপনাকে mode দিতে হবে ip address. তো আপনি আগে দেখে নিন যে, আপনার রাউটারে যদি কেউ কানেক্ট করে তাহলে কোন আইপি তে কানেক্ট হয়। সেটা আপনার মোবাইলে ওয়াইফাই কানেক্ট করে ওয়াই এর ভিতরে দেখবেন advanced লিখা আছে। সেটাতে ক্লিক করলেই দেখাবে। আমার রাউটারে যে প্রথম মোবাইল কানেক্ট করে তার আইপি দেখায় 192.168.0.100 এরপর যে কানেক্ট করবে তার আইপি হবে 192.168.0.101 ।তাই আমি 1০০ থেকে 199 পর্যন্ত সব আইপির জন্য coc সার্ভার ব্লক করে দিবো।

তাই নিচের ছবির মত আপনিও করুন…  আর next এ ক্লিক করুন

এইবার দেখুন আবার mode সিলেক্ট করতে বলতেছে।

তো এইবার মুড এ ডোমেইন নেইম সিলেক্ট করুন। এবং ডোমেইন নেইম এর প্রথম এবং দ্বিতীয় ঘরে যথাক্রমে gamea.clashofclans.com এবং game.clashofclans.com বসিয়ে next এ ক্লিক করুন।

এরপর সিডিউল ডেস্ক্রিপশন এ all time লিখে next এ ক্লিক করুন।

এরপর নিচের ছবির মত rule name, coc blocked লিখে finish এ ক্লিক করে দিন।

ভাবছেন কাজ শেষ? নাহ। আরেকটু বাকি আছে। এখন শুধু আমাদের enable করে দিতে হবে। নিচের ছবির মত enable internet access control এ ক্লিক করে deny সিলেক্ট করে সেভ দিন। coc সার্ভার ব্লক হয়ে যাবে। আর কেউ coc গেমস এ ঢুকতেই পারবে না। আর যদি deny না দিয়ে allow এ ক্লিক করে সেভ করেন তাহলে coc ছাড়া আর কিছুই চালাতে পারবেন না। তাই deny দিয়ে ক্লিক করুন। সব চলবে শুধু coc চলবে না।

যাহোক, অনেক আজাইরা কথা বার্তা বলেছি। আর একটা আপদকে আপনার ঘর থেকে বিদায় করে দিলাম । যদি ভাল লাগে আমার এই টিউন তাহলে অবশ্যই কমেন্ট এ জানাবেন। আর যদি আপনার কাছে মনে হয় সবারই এই coc সার্ভার ব্লক করে দেয়া উচিত তাহলে অবশ্যই ফেসবুকে একটা শেয়ার দিয়ে সবাই কে জানিয়ে দিন।

আজকের মত এখানেই বিদায়। ভাল থাকুন, সুস্থ থাকুন, প্রযুক্তিকে ভালবাসুন,আর প্রযুক্তির সাথেই থাকুন।

আল্লাহ হাফিজ

ফেসবুকে আমি 

 

 

 

 

Please comment Here (ভাল লাগলে কমেন্ট করুন)