বাংলা সিনেমা “Jodi Ekdin যদি একদিন” মুভি রিভিউ

0
662

মুভির নাম : যদি একদিন

ধরণ : Family Drama, Romance

Directed by : Muhammad Mostafa Kamal Raz

Produced by : Bengal Multimedia

Cast : ফয়সাল চরিত্রে তাহসান

জিমি চরিত্রে তাসকিন

অরিত্রী চরিত্রে শ্রাবন্তী

রূপকথা চরিত্রে রাইসা

Country : Bangladesh

Industry : Dhallywood

Language : Bangla

Released Date : March 8, 2019

Running Time : 135 Minutes

IMDb Rating : 6.6

কাহিনীঃ ৭ বছরের এক মেয়ের বাবা ফয়সাল। বউ নেই। সে একটি কোম্পানির উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা। মেয়েকে ঘিরেই তার সবকিছু। ‘যদি তার মেয়েকে কেউ অবহেলা করে “- এই ভয়ে সে বিয়ে করে না।

অন্যদিকে, ফয়সালের কোম্পানির মার্কেটিং অফিসার অরিত্রী। ফয়সাল আর অরিত্রী অফিসের একটা কাজে কক্সবাজার যায়। ফয়সাল তার মেয়ে রূপকথাকেও তাদের সঙ্গে নিয়ে যায়।

“ফয়সালের একটা মেয়ে আছে “— এই কথা জানলে অনেক অবাক হয়ে যায় অরিত্রী। কিন্তু বউ নেই জেনে খুশি হয় 😂
কেননা, সে ফয়সালকে পছন্দ করা শুরু করেছে। বিয়ে করতে চায় সে।

একসময়, অরিত্রী রূপকথার প্রতি দূর্বল হয়ে পড়ে। রূপকথাও অরিত্রীকে নিজের মায়ের মত ভালবাসতে শুরু করে।

আস্তে আস্তে কাহিনী সামনে এগিয়ে যায়। ফয়সালের একটা মেয়ে আছে, একথা জেনে ফয়সালকে বিয়ের প্রস্তাব দিতে গিয়েও বিয়ে দিতে রাজি হয় না অরিত্রীর মা-বাবা।

অরিত্রীকে ফয়সাল বলে দেয়, সে যেন বাবা-মেয়ের মাঝখানে না আসে।

এরপর অরিত্রীর সঙ্গে এনগেজমেন্ট হয় বিখ্যাত সিঙ্গার জিমির সঙ্গে।

তারপর কি হয়? রূপকথার মা কি হতে পারে অরিত্রী? অরিত্রী কি ফয়সালকে পায়? এসব প্রশ্নের উত্তর জানার জন্য নিজের ইচ্ছায় দেখে নিতে পারেন ” যদি একদিন ” মুভিটি।

আর একটা কথা, মুভি দেখার পর সময় নষ্ট হলে আমায় কিন্তু দোষ দিতে পারবেন না।

রিভিউ :

আমার কাছে মনে হয়েছে, মুভিটি খুবই স্লো। সাথে বিরক্তিকরও মনে হয়েছে। এতই স্লো আর বিরক্তিকর মনে হয়েছে যে, শেষে যে টুইস্টটা আছে, সেটাও পানসে লেগেছে।

আমার মতে, প্রথম হাফেই তাসকিনকে মুভিতে প্রবেশ করানো উচিত ছিল।

মুভির সংলাপ সম্পর্কে আর কি বলব না! একেবারে বোরিং, অনেকসময় বিরক্তিকরও মনে হয়েছে। এত ছোট মেয়ের মুখে পাকনা সংলাপ দিয়ে, পরিচালক মুভিকে পুরোপুরি নষ্ট করেছেন।

সত্যি কথা বলতে, মুভির গল্প মোটামুটি ভাল ছিল। কিন্তু মুভির মেকিং ছিল একেবারে বাজে। সাথে শ্রাবন্তী ন্যাকামি অভিনয় আর এক্সপ্রেশন । শুধু ইনার এক্সপ্রেশন কেন, সবার এক্সপ্রেশন ছিল প্রচুর বাজে। তাহসানের ইমোশনাল এক্সপ্রেশন দেখে মাঝে মাঝে হাসি চলে এসেছে আমার।

সবার অভিনয় ছিল যথেস্ট বাজে।

তবে একটা ব্যাপার বুঝলাম না, তাহসানের যে বউ নাই, এই বিষয়ে কারও কোন মাথা ব্যথা নাই কেন? নাকি সবাই ধরে নিয়েছে, তাহসান ছেলে না, তাই তাঁর বউ থাকা উচিত নয়।

তবে আপনি যদি বাংলা সিনেমা দেখে থাকেন এবং যদি বাংলা সিনেমার মানদন্ডে এই মুভিকে বিচার করেন, তাহলে অত খারাপ লাগবে না আপনাকে এই মুভি।

একটা জিনিসেই ভাল লাগছে এই মুভির। আর তা হল, “লক্ষীসোনা ” গানটাই।

Please comment Here (ভাল লাগলে কমেন্ট করুন)