Windows এ ৪ উপায়ে আপনার ইন্টারনেট স্পিডকে বাড়িয়ে নিন

0
136

আপনার ইন্টারনেট কি খুব স্লো মনে হচ্ছে? আপনার কি মনে হচ্ছে আপনি যেই স্পীড প্রোভাইডার এর কাছ থেকে নিয়েছেন সেই স্পিড পাচ্ছেন না? তাহলে আজকের পোষ্ট টি আপনার জন্যই। ৪ উপায়ে আপনার ইন্টারনেট স্পিডকে বাড়িয়ে নিতে পারেন। আসলে স্পিড বেশি বাড়বে তা নয়। আপনি ফুল পারফরমেন্স পাবেন।

অনেক সময় দেখা যায়, আপনি স্পিড নিয়েছেন ১এম্বিপিএস(১২৮কেবিপিএস) কিন্তু স্পিড পাচ্ছেন ৭০ কেবিপিএস। তো এই সমস্যাটার সমাধানই আজকে করবো।

সবার আগে আপনার কানেকশন স্পিড টেস্ট করে নিন

Speedtest.net  থেকে আপনি আপনার স্পিড, সরি আপনার ইন্টারনেট স্পিড চেক করে নিতে পারেন।  বিভিন্ন দেশের লোকেশন সিলেক্ট করে ট্রাই করুন এবং রেজাল্ট দেখুন। আপনার প্রোভাইডার যেই স্পিড এর কথা বলেছিল সেটা কি পাচ্ছেন কি না।

এখানে

ping: এখানে পিং হচ্ছে সার্ভার রেসপন্স টাইম। এটা যত কম হবে ততই ভাল।

Download: এটা আপনার ডাউনলোড স্পিড। যেটাকে মেগাবিট পার সেকেন্ড দিয়ে প্রকাশ করা হয়। এটা যত বেশি থাকবে ততবেশি স্পিডে আপনি ডাউনলোড করতে পারবেন।

Upload: এটা আপ্লোড স্পিড। অর্থাৎ কত দ্রুত আপনার ফাইল আপলোড হবে তা এটির উপর নির্ভর করে।

আপনি যদি ১এম্বিপিএস ডাউনলোড স্পিড দেখায় তাহলে সর্বোচ্চ ১২৮ কেবিপিএস এ ডাউনলোড করতে পারবেন। সেই হিসাব টা আগে করে নিন। এরপর যদি দেখেন ডাউনলোড করার সময় আপনার স্পিড কম পাচ্ছেন তাহলে আজকের এই পোষ্ট টি আপনার উপকারে আসবে। ফুল স্পিড পাওয়ার জন্য আপনি নিজের কাজগুলো করতে পারেন।

১। নেটওয়ার্কখোর এপ্সগুলো বন্ধ করে দিন।

গাঁজাখোরের নাম আমরা সবাই জানি। এইবার নেটওয়ার্কখোর এপ্সে সম্পর্কে জেনে নিন। যেই এপ্স গুলো বেশি ইন্টারনেট ব্যবহার করতেছে সেগুলোই ঐ দলের লোক। এদেরকে চেনার Ctrl + Shift + Esc  চেপে টাস্ক ম্যানেজার ওপেন করুন। এরপর প্রসেস ট্যাব এ ক্লিক করলেই দেখতে পাবেন কোন এপ্স কি পরিমাণ ইন্টারনেট ব্যবহার করছে। যেগুলো আপনার দরকার নেই সেগুলোর প্রসেস বন্ধ করে দিন

চলুন কিছু রেগুলার নেটওয়ার্ক খোর এর নাম জেনে নিই,

  1. কাউড স্টোরেজ যেমন ড্রপবক্স সিঙ্কিং এর জন্য ব্যবহৃত এপ্স
  2. টরেন্ট ডাউনলোডার
  3. ব্রাউজারে ডাউনলোড চলা ফাইল
  4. ফোরকে বা এইচডি ভিডিও স্ট্রিমিং

২। কানেক্টেড থাকা অন্যান্য ডিভাইস গুলো শনাক্ত করুন এবং স্পিড লিমিট করে দিন।

অনেক সময় দেখা যায়, আপনি কাজের জন্য নেট ব্যবহার করতেছেন। ঠিক ঐ সময় অন্য কেউ তার ফোনে বা ল্যাপটপে ভিডিও দেখতেছে। আপনার কাজের ক্ষতি হচ্ছে। তো সেক্ষেত্রে আপনি নেটকাট সফটওয়্যারটি ব্যবহার করে সবার স্পিড লিমিট করে দিতে পারেন অথবা ডিস্কানেক্ট করে দিতে পারেন।

netcut download link(windows)

wifi killer (android root)

৩। উইন্ডোজ আপডেট ডেলিভারি অপশন ঠিক করে নিন

আপনি হয়তো জানেন নি না যে, আপনার নেটওয়ার্ক থেকে যদি কেউ উইন্ডোজ ১০ আপডেট করতে চায় আর আপনি তার আগেই আপনার উইন্ডোজ ১০ আপডেট করেছেন তাহলে সেই ব্যক্তির কাছে আপনার কম্পিউটার থেকে ফাইল আপ্লোড হবে। এটা টরেন্ট এর মতই একটা সার্ভিস যেটা উইন্ডোজে ডিফল্ট অন করে দেয়া আছে। এটা অনেকের হয়ত উপকার হবে। কিন্তু আপনার স্পিডের ক্ষতি করবে।

তাই এটাকে অফ করে দিন। Settings > Update & Security > Delivery Optimization তে যান ।এরপর Allow downloads from other PCs slider টা অফ করে দিন।

এরপর Advanced Options এ ক্লিক করে উইন্ডোজ আপডেটের সময় কতটুকু স্পিড সে নিবে সেটার লিমিট করে দিন। এমনকি কতটুকু শেয়ার করতে চান সেটাও লিমিট করে দিতে পারবেন।

 

৪। আপনার DNS সার্ভার চেঞ্জ করুন

অনেক সময় ডিএনএস জনিত কারণে নেটওয়ার্ক স্লো হয়ে থাকে। তাই সেক্ষেত্রে আপনি গুগলের পাবলিক ডিএনএস ব্যবহার করতে পারেন। কিভাবে করবেন/?

আপনার এপ্স এ সার্চ করুন Network and Sharing Center. এরপর সেখানে ক্লিক করুন। নাহলে একটু খুজে বের করে নিন কন্ট্রোল প্যানেল থেকে।  এরপর কানেক্ট থাকা নেটওয়ার্কে connection এ ক্লিক করুন।

এরপর Properties  এ ক্লিক করুন। তারপর Internet Protocol Version 4   এ ডাবল ক্লিক করে নিচের দিকে Use the following DNS server addresses সিলেক্ট করুন। এরপর আইপিগুলো নিচের ছবির মত বসিয়ে দিন।

  • Preferred DNS server: 8.8.8.8
  • Alternate DNS server: 8.8.4.4

ব্যাস। আজকের মত এ পর্যন্তই। আশা করি আপনার স্পিড আগের থেকে একটু হলেও বাড়বে। আর কার কতটুকু বেড়েছে কমেন্টে একটু জানাবেন প্লিজ।

ভাল থাকুন, সুস্থ থাকুন, প্রযুক্তিকে ভালবাসুন আর প্রযুক্তির সাথেই থাকুন।

আল্লাহ হাফিজ…

Please comment Here (ভাল লাগলে কমেন্ট করুন)