পেন্টাগনের ক্লাউড প্রকল্প পেল মাইক্রোসফট

0
74

যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা বিভাগের সদরদপ্তর পেন্টাগনের দশ বিলিয়ন ডলারের প্রকল্পের জন্য চূড়ান্ত নাম ঘোষণা করা হয়েছে। প্রকল্পটি পেয়েছে সফটওয়্যার জায়ান্ট মাইক্রোসফট।

শুক্রবার পেন্টাগনের কর্মকর্তারা মাইক্রোসফটের নাম ঘোষণা করেছে। যারা আগামী দশ বছর পেন্টাগনের সঙ্গে ক্লাউড-কম্পিউটিং নিয়ে কাজ করবে।

চূড়ান্ত তালিকায় দুটি নাম ছিল। এর একটি অ্যামাজন আরেকটি মাইক্রোসফট। তবে নিলামে অ্যামাজনের থেকে মাইক্রোসফট এগিয়ে থেকে প্রকল্পটি পেয়েছে।

দশ বছরের ওই প্রকল্প চুক্তির ফলে যুক্তরাষ্ট্রের নিরাপত্তা অবকাঠাসো আরও প্রযুক্তিগতভাবে সক্ষম করে তোলা এই প্রকল্পের উদ্দেশ্য।

নিলামের আগে অ্যামাজন অবশ্য তার প্রতিদ্বন্দ্বী ও যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমালোচনা করেছিলেন। এরপর যখন চূড়ান্ত নাম ঘোষণা করা হয় তখন, অ্যামাজন অনেকটা বিস্মিত হয়েছে মাইক্রোসফট কাজ পাওয়াতে।

শুক্রবার প্রতিষ্ঠানটি এক বিবৃতিতে বলেছে, নিলামে পক্ষপাতিত্ব হয়েছে। এখানে অনেক কিছু লুকোছাপা করার অভিযোগও করেছে অ্যামাজন।

তবে সে সব অভিযোগকে এক কথায় উড়িয়ে দিয়ে পেন্টাগন বলেছে, সব কাজই খুব নায্যভাবে হয়েছে। কারো প্রতি পক্ষপাতিত্ব করা হয়নি।

প্রকল্পটির নাম ‘জয়েন্ট ইন্টারপ্রাইজ ডিফেন্স ইনফ্রাস্ট্রাকচার’ বা জেদি। এটি মূলত ক্লাউড ভিত্তিক কম্পিউটিং। যেখানে যুদ্ধক্ষেত্রের নানা ধরনের ডেটা সংগ্রহ করবে এবং তা তাৎক্ষণিক বিশ্লেষণ করবে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার সাহায্যে।

প্রকল্পটি নিয়ে নানা ধরনের সমালোচনা হয়েছে সেই শুরু থেকেই। এর আগে প্রকল্পটিতে কাজ পেতে পেন্টাগনের সঙ্গে একটা প্রাথমিক চুক্তিও করেছিল মার্কিন জায়ান্ট গুগল। পরে তার কর্মীরা প্রকল্পে কাজ করতে অস্বীকৃতি জানালে প্রকল্প থেকে নিজেদের সরিয়ে নিতে বাধ্য হয় জায়ান্টটি।

প্রকল্পটি যতোটা না দেশটির নিরাপত্তার জন্য করা হচ্ছে, তার চেয়ে বেশি যুদ্ধ বাধানোর মতো কাজে ব্যবহার করা হবে বলেই গুগল কর্মীরা শুরু থেকে বলে আসছিল।

সূত্রঃ বিবিসি

ধন্যবাদ, itdoctor24.com এর সাথেই থাকুন।

পোস্টটি প্রয়োজনীয় হলে শেয়ার করুন।

Please comment Here (ভাল লাগলে কমেন্ট করুন)