এভি-টেস্টের ফলাফলে উইন্ডোজ ১০ এর জন্য সবচেয়ে ভালো অ্যান্টিভাইরাস ।

0
104

উইন্ডোজ ব্যবহারকারী হিসেবে আপনি কি চিন্তিত? এই ভেবে যে, কোন অ্যান্টিভাইরাসটি উইন্ডোজ ১০ এর জন্য সবচেয়ে ভালো এবং উপযোগী । এই বিষয়টা আসলেই একটু বিভ্রান্তিকর মনে হতে পারে, কেননা ইন্টারনেটে অনেক অ্যান্টিভাইরাস রয়েছে। তো আমরা আসলে কীভাবে সিদ্ধান্ত গ্রহণ কোন অ্যান্টিভাইরাসটি আমাদের ব্যবহার করা উচিত? চলুন এভি-টেস্টের ফলাফলের মাধ্যমে দেখে নেই অ্যান্টিভাইরাস হিসেবে কার অবস্থান কোথায়?

১. উইন্ডোজ ডিফেন্ডার

অনেকই নিজের কম্পিউটার নিরাপত্তার জন্য উইন্ডোজ ডিফেন্ডারকে বিশ্বাস করে না। কিন্তু বর্তমানে উইন্ডোজ ডিফেন্ডার আর আগের অবস্থানে নেই, যেটা কিনা কিছু বছর আগে ছিল। উইন্ডোজ ডিফেন্ডার আগে খুবই নিম্ন মানের নিরাপত্তা প্রদান করত, তবে এখন আপডেট করা ফলে পরিবর্তন ঘটেছে।

মাইক্রোসফট বর্তমানে কম্পিউটারের নিরাপত্তাকেই সবচেয়ে বেশি জোর দিচ্ছে । সাম্প্রতিক এভি-টেস্টে উইন্ডোজ ডিফেন্ডার ১০০ ভাগ ম্যালওয়্যার আক্রমণ শনাক্ত করতে সক্ষম হয়েছে।

উইন্ডোজ ১০ অপারেটিং সিস্টেমটি সবচেয়ে বেশি বিক্রয় হওয়ার জন্য, উইন্ডোজ ডিফেন্ডারের এই ভালো কার্যক্ষমতাটি কাজ করছে বলে বিবেচনা করা হয়। এটা দ্বারা সহজেই অ্যাপের ভাইরাস সুরক্ষা প্রদান, ফায়ারওয়াল প্রোটেকশন, ডিভাইস সুরক্ষা ইত্যাদি সরাসরি উইন্ডোজ সেটিংস্‌ মেনু থেকে পরিচালনা করা যায়।

এভি-টেস্ট স্কোর- অ্যাপের নিরাপত্তা এবং ব্যবহারযোগ্যতার উপর স্কোর ৬/৬ । কার্যক্ষমতার উপর স্কোর ৫.৫/৬ । এই স্কোর গুলোই একটি ভালো অ্যান্টিভাইরাস হিসেবে উইন্ডোজ ডিফেন্ডারকে প্রমাণ করে । কিন্তু এটির ২০১৫ সালে সামগ্রিক স্কোর ছিলো মাত্র ০.৫/৬ ।

২. ক্যাসপারস্কি ইন্টারনেট সিকিউরিটি

ক্যাসপারস্কি অনলাইন সিকিউরিটির জন্য বিশ্বে সমাদৃত । এই কম্পানি তাদের অ্যান্টিভাইরাসটির তিন ধরণের আলদা অফার দিয়ে থাকে – অ্যান্টিভাইরাস, ক্যাসপারস্কি ইন্টারনেট সিকিউরিটি এবং সিকিউরিটি ক্লাউড । এই তিনটি সফটওয়্যারই উইন্ডোজ ১০ এর ইন্টারনেট সিকিউরিটির জন্য বেশ ভালো।

প্রকৃতপক্ষে, ক্যাসপারস্কিরও আগে তাদের কার্যক্ষমতায় কিছু বিষয়ে সমস্যা ছিল, কিন্তু উইন্ডোজ ডিফেন্ডারের মত ক্যাসপারস্কিও সকল সমস্যার সমাধান করার চেষ্টা করে সামনে এগিয়ে যাচ্ছে। এভি -টেস্টর সকল টেস্টিং ধাপে ক্যাসপারস্কির স্কোর ৬/৬ ।
ক্যাসপারস্কি অ্যান্টিভাইরাস অ্যাপের দাম মাত্র ৭৫ ডলার যেটা কিনা শুধুমাত্র ডেস্কটপ পিসিকে সুরক্ষা দিবে। ক্যাসপারস্কি ইন্টারনেট সিকিউরিটি মাত্র ৭৯ ডলার যেটা দ্বারা কম্পিউটারের পাশাপাশি মোবাইলের সুরক্ষাও তারা প্রদান করবে।

৩. বিটডিফেন্ডার ইন্টারনেট সিকিউরিটি

এভি-টেস্টে সুরক্ষা, কর্মক্ষমতা এবং ব্যবহারযোগ্যতার জন্য নিখুঁত 6/6 স্কোর সহ, বিটডিফেন্ডার ইন্টারনেট সুরক্ষা সন্দেহাতীতভাবে উইন্ডোজের সেরা অ্যান্টিভাইরাস অ্যাপগুলির মধ্যে অন্যতম হয়েছে। উইন্ডোজ ডিফেন্ডার, ক্যাসপারস্কি সফটওয়্যার গুলোর মত বিটডিফেন্ডারও ১০০ ভাগ ম্যালওয়্যার আক্রমণ শনাক্ত করতে সক্ষম হয়েছে। বিটডিফেন্ডারেও তিন ধরণের অফার রয়েছে, টোটাল সিকিউরিটির জন্য ৪০ ডলার, যার সাথে মোবাইলেরও সুরক্ষা প্রদান করেবে। ইন্টারনেট সিকিউরিটির জন্য ৩৫ ডলার, এর মাধ্যমে ইন্টারনেট সুরক্ষার পাশাপাশি ফায়ারওয়াল, ওয়েবক্যাম সুরক্ষা প্রদান করবে এবং অ্যান্টিভাইরাস প্লাস এর জন্য ৩০ ডলার, এর মাধ্যমে শুধুমাত্র কম্পিউটার এর যাবতীয় সুরক্ষা প্রদান করা হবে।
এছাড়াও বিটডিফেন্ডার রয়েছে একাধিক ধাপের র‍্যানসমওয়্যার ভাইরাস সুরক্ষা, প্যারেন্টাল নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা।

৪. ম্যাকফী ইন্টারনেট সিকিউরিটি

উইন্ডোজের অ্যান্টিভাইরাস প্রতিরোধের জন্য, ম্যাকফী ইন্টারনেট সিকিউরিটিকেও বিবেচনায় নেয়া যায়। এটাও এভি-টেস্টের সকল বিভাগে ৬/৬ স্কোর করেছে।
ম্যাকফী ইন্টারনেট সিকিউরিটি মূলত আন্টিম্যালওয়্যার টুল, উ আর এল (URL) ব্লকিং, ফিশিং সুরক্ষা এবং কম্পিউটারের দুর্বলতা খুঁজে বের করতে সাহায্য করে। কম্পিউটারের দুর্বলতা খুঁজে বের করা এটা কোনো সাধারণ অ্যান্টিভাইরাসের বৈশিষ্ট্য নয়, এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ । তাই ম্যাকফীও ভালো পছন্দ হতে পারে।

৫. ইসেট নোড৩২

নোড ৩২ এই অ্যান্টিভাইরাসটিও খুবই ভালো, এটাও ম্যালওয়্যার আক্রমণ শনাক্ত করতে পারে । পাশাপাশি এটি উইন্ডোজ ১০ এর জন্য তেমন একটা ভারী সফটওয়্যারও নয় । এটিও ভালো কার্যক্ষমতার জন্য উপরের অবস্থানে রয়েছে।
অনেক ব্যবহারকারী বর্তমানে এটি ব্যবহার করছেন, কেননা এটা দ্বারা সিস্টেমের ফাইল চেকিং, , ম্যালওয়্যার বাইটস এবং ওয়েব ভিত্তিক বিভিন্ন বিষয় পর্যবেক্ষণ করে ।
ইসেট নোড৩২ অ্যান্টিভাইরাসটিও তিন ধরণের অফার রয়েছে ৪০, ৫০ এবং ৬০ ডলারের । বেসিক ভার্সনটি ফায়ারওয়াল এবং স্প্যাম ফিল্টারিং এর সুবিধা প্রদান করে না।

৬. নোরটোন সিকিউরিটি

নোরটোন সিকিউরিটি অনেক আগে থেকেই অ্যান্টিভাইরাস হিসেবে মার্কেটে রয়েছে। কিন্তু বিগত দশকে এর জনপ্রিয়তা খুব দ্রুতই কমে যায় । যার কারণ হিসেবে ছিলো, ফ্রিতেই আন্টিম্যালওয়্যার পণ্যের সহজলভ্যতা, সময়ের সাথে সাথে সেবাসমূহ আপডেট না করা, তুলনামূলক অন্য অ্যান্টিভাইরাস গুলোর সাথে মুল্যের পার্থক্য বেশি।

কিন্তু এখন সব কিছু পিছনে ফেলে, নোরটোন সিকিউরিটি আবার আগের মত সেবা দেওয়া শুরু করেছে । তারাও এভি-টেস্টের সকল বিভাগে ৬/৬ স্কোর করতে সক্ষম হয়েছে।

নোরটোন সিকিউরিটি এখন ম্যলওয়্যার স্ক্যান, রিয়েল-টাইম ওয়েসাইট চেকিং, URL ব্লকিং, ফিশিং সুরক্ষা ইত্যাদি সুবিধা প্রদান করছে।
নোরটোন সিকিউরিটি তাদের মুল্য পরিকল্পনায় প্রত্যেক বছরে ৪০ থেকে ১০০ ডলার চার্জ করছে,  মুল্যটি মূলত নির্ভর করে গ্রাহকের অতিরিক্ত কোনো সুবিধা নেয়ার উপর।

আজকের পোষ্টে এভি-টেস্টের ফলাফলে উইন্ডোজ ১০ এর জন্য সবচেয়ে ভালো অ্যান্টিভাইরাস নিয়ে আলোচনা এই পর্যন্তই । পরবর্তী পোষ্টে আবার দেখা হবে , আল্লাহ্‌ হাফেজ। সবাই আইটি ডক্টর ২৪.কম এর সাথে থাকুন।

Please comment Here (ভাল লাগলে কমেন্ট করুন)