১৮ মাসের বেশি তথ্য রাখবে না গুগল

0
161

গুগল আর নতুন ব্যবহারকারীদের প্রতিটি অনুসন্ধানের পুরো তথ্য সংরক্ষণ করবে না। গুগলের পক্ষ থেকে সম্প্রতি এ তথ্য জানানো হয়। প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সুন্দর পিচাই গতকাল বুধবার ঘোষণা দেন, ওয়েব ও অ্যাপে নতুন ব্যবহারকারীর কার্যক্রমের সংরক্ষিত রেকর্ড ১৮ মাস পর স্বয়ংক্রিয়ভাবে মুছে দেবে। এর আগে এসব তথ্য ডিফল্ট আকারে সংরক্ষিত থাকত। গুগল কর্তৃপক্ষের যুক্তি ছিল, এসব রেকর্ড তাদের নির্দিষ্ট ব্যবহারকারীর জন্য ব্যক্তিগত সেবা উন্নত করার কাজে লাগবে।

গুগলের প্রতিদ্বন্দ্বী অ্যাপল সম্প্রতি প্রাইভেসির বিষয়টিকে অধিক গুরুত্ব দেওয়া শুরু করেছে। দ্য গার্ডিয়ানের প্রতিবেদনে বলা হয়, অ্যাপলের সঙ্গে প্রতিযোগিতা জোরদার করতে গুগল তাদের প্রাইভেসি সুরক্ষার বিষয়গুলো সামনে আনার জোর প্রচেষ্টা চালাচ্ছে।

যেসব গুগল ব্যবহারকারী এখন লোকেশন হিস্টোরি বা অবস্থানগত নানা তথ্য গুগলে সংরক্ষিত রাখেন, সেগুলোর ক্ষেত্রেও ১৮ মাস পর্যন্ত সংরক্ষণের মেয়াদ থাকবে। এরপর তা স্বয়ংক্রিয়ভাবে মুছে যাবে।

পিচাই বলেন, ‘আমরা যখন আমাদের কোনো পণ্যের নকশা করি, মূলত তিনটি বিষয়কে গুরুত্ব দিই। আপনার তথ্য সুরক্ষা, একে দায়িত্বশীলতার সঙ্গে রাখা এবং আপনার তথ্যের নিয়ন্ত্রণ আপনার হাতেই রাখা। তবে স্বয়ংক্রিয় তথ্য মুছে যাওয়ার এ বিষয়টি জিমেইল ও গুগল ফটোজের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে না। এই সেবাগুলো ব৵ক্তিগত তথ্য সংরক্ষণ করার জন্যই তৈরি করা হয়েছে।’

গুগল গত বছর ‘অটো-ডিলিট’ অপশনটি প্রথম চালু করে। এতে প্রাইভেসি সচেতন ব্যবহারকারীদের জন্য স্মার্ট সেবা ব্যবহারের পরও ওয়েবে এক বছরের বেশি তথ্য জমা রাখার সুযোগ থাকে না। বিশ্বজুড়ে যে ১৫০ কোটি মানুষের গুগল অ্যাকাউন্ট আছে, তাদের জন্য সেটিংস পরিবর্তনটি নিজে থেকেই করতে হবে। গুগলের পক্ষ অনেককেই ‘প্রাইভেসি পরীক্ষা’–সংক্রান্ত মেইল পাঠানো হয়েছে এবং এখনো হচ্ছে। এতে ব্যবহারকারী তথ্য সংরক্ষণ করতে চান কি না, তা জানতে চাওয়া হয়।

প্রাইভেসির বিষয়টি নিয়ে অ্যাপলের সঙ্গে প্রতিযোগিতার ফলে চাপে রয়েছে গুগল। অ্যাপল এমন পথ বেছে নিয়েছে, যাতে তাদের ব্যবহারকারীর তথ্যের ওপর খুব কম নির্ভর করতে হয়। গত সোমবার অ্যাপলের বার্ষিক ডেভেলপার সম্মেলনে অ্যাপল নতুন একটি ফিচার নিয়ে এসেছে, যা মূলত বিল্ট ইন ট্রান্সলেট অ্যাপ, যা অফলাইনেও কাজ করবে। অ্যাপল তাদের নতুন সফটওয়্যারে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিয়েছে প্রাইভেসিতে। অ্যাপল এখন ব্যবহারকারীদের একদম নিখুঁত অবস্থান জানানোর পরিবর্তে সম্ভাব্য অবস্থান ঠিক করে নেওয়ার সুযোগ দেবে। অ্যাপ স্টোরে ব্যবহারকারী অ্যাপ ডাউনলোডের আগে তাঁদের প্রাইভেসি তথ্যের সারাংশ দেখতে পাবেন। অ্যাপ ডেভেলপাররা নিজেদের প্রাইভেসি চর্চা–সম্পর্কিত প্রতিবেদন দেবে। অন্যদিকে, গুগলের অটো ডিলিট ফিচারের মাধ্যমে তথ্য সংরক্ষণ না করে রাখার প্রতিশ্রুতি জানাচ্ছে গুগল।

গুগলের কর্মকর্তা ডেভিড মনসিস বলছেন, ‘এ জিনিসটাই আমরা অনেক দিন ধরে করছি। আমরা জানি যে তথ্য আমাদের পণ্য ও সেবার জন্য উপকারী। দীর্ঘ সময় তথ্য রাখার আমাদের একমাত্র উদ্দেশ্য হলো—এগুলো যাতে বিভিন্ন কাজে লাগে।’

সূত্রঃ প্রথম আলো

ধন্যবাদ, itdoctor24.com এর সাথেই থাকুন।

পোস্টটি প্রয়োজনীয় হলে শেয়ার করুন।

Please comment Here (ভাল লাগলে কমেন্ট করুন)