সাবধান! আপনাকেও বানানো হতে পারে হিজরা, অল্পের জন্য বেঁচে গেল জুয়েল

0
396

নেত্রকোনার দূর্গাপুরে জুয়েলের এই ঘটনাটি ঘটে।
মঙ্গলবার সকালে নেত্রকোনার দুর্গাপুরে এমনই এক হিজড়ার আখড়া থেকে রক্ষা পেল জুয়েল স্থানীয় সাংবাদিকদের সহায়তায়।

এ নিয়ে জানা গেছে, স্থানীয়ভাবে যেসকল ছেলেদের মধ্যে একটু মেয়েলিপনা ভাব দেখা যায়, তাদের পুরুষাঙ্গ কেটে জোর করে হিজড়া বানানো হয়। একটি চক্র হিজরা বানানোর
পর এদের দিয়ে নানা অপরাধমূলক কাজ করিয়ে থাকে।

পৌরসভার চকলেঙ্গরা গ্রামে হিজড়াদের সর্দার হচ্ছেন মনির হোসেন ওরফে পাখি। দীর্ঘদিন এই পেশায় নিয়োজিত থেকে উপজেলার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে মেয়েলি স্বভাবের ছেলেদের ফুঁসলিয়ে তাদের আখড়ায় নিয়ে আসে। এরপর ট্রেনিং দিয়ে পূর্ণাঙ্গরূপে প্রস্তুত করে ময়মনসিংহ, কিশোরগঞ্জ ও ভৈরবসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় সরবরাহ করে থাকে।

সাংবাদিকদের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যায় হিজরা সর্দার পাখিসহ আরও কয়েকজন। পরে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় প্রকৃত হিজরা স্বপ্না, লালু ও করিমনের সঙ্গে কুল্লাগড়া ইউনিয়নের মাধবপূর গ্রামের নিরীহ দিন মজুর আকদুল সালামের ছেলে জহিরুল ইসলাম জুয়েলকে উদ্ধার করা হয়।

বিগত ৩ বছর ধরে হিজরা সর্দার পাখির পাল্লায় পড়ে বাড়ি ছেড়ে চলে আসে। তার মাথার চুল রাখা হয় মেয়েদের মত করে। তাকে নানা ট্রেইনিং দিয়ে তার নাম পালটে রাখা হয়েছিলো জুলেখা। উদ্ধারের পর জহিরুল ইসলাম কে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তি ও প্রেস ক্লাব সভাপতি নির্মলেন্দু সরকার বাবুল, সাধারণ সম্পাদক তোবারক হোসেন খোকন সহ অন্য সাংবাদিকদের সহায়তায় তার বাবা মার হাতে তুলে দেয়া হয়।
দুর্গাপুর থানার ওসি সাংবাদিকদের বলেন, এ রকমের একটি চক্র অনেকদিন ধরে এলাকার বিভিন্ন স্থানে এসব অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছে। পুলিশ ও সাংবাদিকদের যৌথ প্রচেষ্টায় উদ্ধার হল জুয়েল। সমাজে এ ধরনের অপরাধমূলক কাজ নির্মূলে সহায়তা করতে সমাজের সব ধরনের মানুষকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি।

Please comment Here (ভাল লাগলে কমেন্ট করুন)