ভার্সিটিতে পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের জন্য বিল গেটসের কিছু গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ |

0
383

বিশ্ববিদ্যালয় কিংবা কলেজ শেষ করেই আমাদের তরুণরা জীবনযুদ্ধে নেমে পড়ে। কেউ পৃথিবীকে পরিবর্তন করতে চায়, কেউ বা নিজের জীবনকে। শেষ পর্যন্ত কেউ পরিবর্তন করে, আর কেউ নিজেই পরিবর্তিত হয়। সবাই যে সব কিছু পারবে, তা কিন্তু নয়। তাই বলে যারা পারে না, তাতে কি জীবন শেষ হয়ে যায়? না, যায় না।

হার্ভার্ড ড্রপআউট, মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা, গেটস ফাউন্ডেশনের উদ্যোক্তা বিল গেটসের নতুন করে পরিচিতি দেওয়ার কোনো দরকার নেই। তিনি একজন ব্যবসায়ী হিসেবে যেমন পরিচিত, ঠিক তেমনি একজন দিকনির্দেশক হিসেবে ভুমিকা রাখছেন আজ তরুণদের জীবনে। গত ফেব্রুয়ারিতে ‘Countdown to the Closing Bell’ নামক একটি অনুষ্ঠানে বিল গেটস দারুণ কিছু কথা বলেছেন। চলুন শুনে নেওয়া যাক-

  • প্রথমেই তোমাদের শুভেচ্ছা জানাই এইজন্য যে তোমরা এমন একটি জিনিস অর্জন করেছ যা আমার নেই আর কোন দিন আমি হয়তো অর্জনও করতে পারবো না- সেটি হলো একটি মূল্যবান কলেজ ডিগ্রী।

কী শিখতে পেলাম- আমাদের মধ্যে কিছু মানুষ আছে যারা প্রায়ই প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষাকে অবহেলা করেন। কিন্তু বিল গেটস একটা কথা মানেন, সেটা হল প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা খুবই দরকারি। তাই ভার্সিটির ডিগ্রী দিয়ে কী হবে, এই কথাটা এখন থেকে ভুলে যান।

  • নতুন কলেজ গ্র্যাজুয়েটরা আমার কাছে প্রায়ই ক্যারিয়ার নিয়ে উপদেশ চায় , আমি তখন কিছুক্ষণ হাসি তারপর ভাবি কী বলব এদের! তখন আমি আমার অভিজ্ঞতা থেকে ৩ টি বিষয় নিয়ে তাদের কাজ করতে বলি-
  1. আর্টিফিশিয়াল ইন্টিলিজেন্স
  2. এনার্জি
  3. বায়োসায়েন্স

ভয়ের ব্যাপার- কি, ব্যবসা প্রশাসনের গ্র্যাজুয়েটরা চিন্তিত হয়ে পড়ছেন, কি করবেন আপনারা? চিন্তার কারণ নেই, সমাধান পরের লাইনেই দিয়ে দিয়েছেন বিল গেটস।

  • মাইক্রোসফট শুরু করার আগে আমি মনে করতাম যদি আমি খুব ভালো কোডিং করতে পারি, তাহলেই আমরা খুব ভালো কিছু করতে পারবো। কিন্তু না, কিছু দিন পরেই আমরা বুঝতে পারলাম আমাদের মধ্যে কোড করার দক্ষতা থাকলেও ব্যবসা করার দক্ষতা খুব কম, কারণ আমরা কেউই ব্যবসা নিয়ে পড়াশোনা করিনি, একই সাথে আমাদের মধ্যে কেউই ব্যবসা বুঝতে পারছি না- কীভাবে মার্কেটিং করবো, কীভাবে কর্মী নিয়ন্ত্রণ করবো, আরও অনেক কিছু। তাই তোমাদের বলব যাই করো না কেন যদি সেটার কমার্শিয়াল ভায়াবিলিটি না থাকে, তাহলে সেটা করে কিছু হবে না।

কী শিখলাম- প্রোডাক্ট টিম কাজ করবে কোর প্রোডাক্ট নিয়ে, আর ব্যবসায়িক বা বিজনেস টিম কাজ করবে বিজনেস নিয়ে। তবেই পুরো প্রসেসটা কাজ করবে। সুতরাং বিজনেস গ্র্যাজুয়েট, পুরো খেলার মাঠ কিন্তু এখন আপনাদের হাতে!

  • আরও যেই ব্যাপারটি আমি তোমাদের শেয়ার করবো সেটা হলো সমাজের ভারসাম্যহীনতা। আমি এবং আমার ওয়াইফ যখন প্রথম আফ্রিকা গেলাম তখন আমরা দেখেছি কত মানুষ, ছোট ছোট বাচ্চা মারা যাচ্ছে দুরারোগ্য রোগে। কিন্তু আমরা ধনী দেশগুলো সেই রোগবালাইগুলোর কোন খোঁজখবরও রাখি না। তাই আমাদের উচিত এই কাজগুলোতে আরও এগিয়ে আসা, যাতে একটি বেটার পৃথিবী আমরা তৈরি করতে পারি।

কী শিখলাম- গেটস সাহেব আফ্রিকা গিয়েছিলেন, কিন্তু এই কাজটি করার জন্য আমাদের আফ্রিকা যেতে হবে না , আগে নিজেদের দেশের দিকে মনোযোগ দিলেই হবে। আমরা কিন্তু খুব সহজেই আমাদের বন্ধের দিনগুলি কিংবা কাজের ফাঁকে সামাজিক উন্নয়নের জন্য কাজ করতে পারি, যেমন পথশিশুদের পড়াশোনা করাতে পারি, সবাই মিলে কোন দুস্থ মানুষকে সাহায্য করতে পারি। এভাবেই কিন্তু আমরাও একটি বেটার বাংলাদেশ গড়ে তুলতে পারি।

  • আমি তোমাদেরকে বলব এমন মানুষদের সাথে মিশতে যে তোমাকে প্রতিনিয়ত চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দেয়, যে তোমাকে নতুন নতুন জিনিস শিখতে উৎসাহিত করে, যে তোমাকে নতুন কাজের দায়িত্ব দেয় – তাহলেই তুমি জীবনকে নতুন করে শিখতে পারবে। আমার ক্ষেত্রে এমন মানুষটি হলো আমার স্ত্রী, যে আমাকে প্রতিনিয়ত নতুন নতুন কাজে উৎসাহিত করে। এমনকি আমার সব কাজের অন্যতম অংশীদার কিন্তু সে।

কী শিখলাম- কোনোমতে ভার্সিটির পড়াশোনা শেষ হলেই আমরা ভেবে বসি, জীবনে পড়াশোনার দরকার শেষ। ঠিক এই কারণেই হয়তো আপনি বা আমি বেশি দূর যেতে পারছি না। হয়তো এই কারণে কিছুদিন পর নিজের জীবনকে খুব একঘেয়ে লাগতে পারে আপনার কাছে। তাই নতুন নতুন জিনিস শিখুন, দেখবেন নিজের ডেভেলপমেন্ট দেখে নিজেরই ভালো লাগছে।

  • আমাকে যদি বলা হয়ে থাকে তোমাদের এই গ্রাজুয়েশন দিনে কোন উপহার দিতে, তাহলে আমি তোমাদের একটা বই উপহার দিতে চাই আর সেটা হলো, “The Better Angels of Our Natureby Steven Pinker”। আমি জানি ৭০০ পেইজের এই বই পড়ার কথা শুনেই হয়তো তোমরা সবাই একটু বিরক্ত হবে, কিন্তু আমি বলছি তোমাদের সবার এই বইটা পড়া উচিত এজন্য যে, তোমাকে জানতে হবে কীভাবে ব্যবসা একটি বেটার পৃথিবী উপহার দিতে পারবে।

কী শিখলাম-  জীবনে ভালো কিছু করতে হলে প্রতিনিয়ত আপনাকে পড়াশোনা করতে হবে, আপনাকে প্রতিমাসের একটা রিডিং লিস্ট তৈরি করতে হবে। আর শুধু পড়লেই হবে না সেই প্রাপ্তবিদ্যাটুকু কাজে লাগাতে হবে।

বিল গেটস সেদিন অনেক কিছুই বলেছিলেন, আমি শুধুমাত্র চেষ্টা করেছি তাঁর কথাগুলোর ভাবানুবাদ করে আপনাদের সামনে উপস্থাপন করতে। সব কথার মধ্যে আমার খুব ভালো লেগেছিল, বিল গেটস আমাদের সবাইকে নিয়মিত পড়তে এবং কাজ করতে বলেছিলেন। আর বেটার পৃথিবী গড়ার কথা বারংবার বলেছেন।

বিল গেটসের মতো আরও এরকম অনুপ্রেরণাদায়ী জগৎবিখ্যাত মানুষদের কথা, তাদের ভালো লাগা সব কিছু নিয়ে প্রতি সপ্তাহ অন্তত একটি করে লেখা লেখার চেষ্টা করব আপনাদের জন্য। ভালো থাকবেন, প্রতিদিন এক ধাপ হলেও এগিয়ে চলবেন! ইনশাআল্লাহ্‌

Please comment Here (ভাল লাগলে কমেন্ট করুন)