আমরা তো সবাই Android মোবাইল Use করি কিন্তু ‍ Android 6.0 Marshmallow সম্পর্কে কি জানেন কি কি থাকছে এই ভার্সন।রুট করলে কি কি সমস্যা হতে পারে কি পাড়ে না । যারা Android Use করেন তারা অবশ্যই দেখবেন

0
373

আসসালামু আলাইকুম,

আশা করি সবাই ভালো আছেন।আজ আপনাদের আমি একটা অতি প্রয়োজনীয় Tips দিব।

এনড্রয়েড যেভাবে মানুষ কে মাতাচ্ছে তাতে উইনডোজ ব্যবহার কারি কমে যাবে। এনড্রয়েড  এটাই জানিয়েছে। তারা প্রতি নিয়ত তাদের ওস কে আপডেট করছে। আর এই আপ-ডেট ভার্সন গুলো তে থাকছে নানা রকম সুবিদা। যা আমাদের এন ড্রয়েড ব্যবহার করতে সাহায্য করে। এক কথায় বলা যায় ইউজার ফ্রেন্ডলি। এন্ড্রয়েড এর প্রথম ভার্সন আমি ২.১ ব্যবহার করেছি। তাতে অনেক রকম অসুবিদা ছিল। আর ছিল অনেক রকম বাগ। যদিও রুট করে ঠিক করে নেওয়া যায় তার পর সবার তো আর এমন টা ভালো লাগে না। এর পর আসলো আইসক্রিম সেন্ডুইজ এর পর জেলিবিন তারপর ললিপপ। অনেকে হয়তো এখন ললি পপ ব্যবহার করছেন। ললি পপ এর পর Marshmallow ৬.০ তার পর তারা যে আর কি বের করবে বলা মুশকিল। তবে এটা বলা যায় যে এন ড্রয়েড খুব তারা তারি তাদের ভার্সন আপডেট করছে আর গ্রাহক এর চাহিদা মেটাচ্ছে।

রুট নিয়ে একটি  কথা বলা যায় সেটি হলো আপনি রম পোর্ট অথবা xda সাইট থেকে রুট করে নিতে পারবেন এই ভার্সন তই।

তো আসুন জেনে নেই কি কি থাকছে এন্ড্রয়েড এর এই ভার্সন টিতে।

ডাউনলোড করে নি marshmallow lancer. উইন্ডোজ থিম সাপোর্ট। আর সেটিং থেকে সুরু করে ফুল marshmallow এর মত সুযোগ পাবেন।

ফিচারঃ

Contextual Assistance(প্রাসঙ্গিক সহায়তা):

এই ভার্সন  টিতে ভয়েজ কমান্ড খুব ভাল। আর আগের থেকে অনেক আপডেট করার কারনে আপনি সহজে যেকোন কিছু বলে আপনার    হোম    স্কিন এ সচল করতে পারেন।

যেকোন আপ্স সেয়ার করতে আপনাকে আর সেয়ার ইট ব্যবহার করতে হবে না রিমোট অথবা আইপি দিয়ে যেকোন ওয়াইফাই সংযোগ দেওয়া ফোন এবং কম্পিউটার থেকে আপ্স সেয়ার এবং দেখতে পারবেন।

ব্যাটারি –

ললি পপ এ দেখছি সুধু চার্জ শেষ হয়ে গেলে আমারা টার্ন অন বাটারি সেভার দেখতে পাই। আর কিছু  ব্যাটারি সেভার আছে যেগুল আমার ব্যবহার করলে বাকগ্রাউন্ড এ থাকা আপ্স ডিলেট করে। মিনিমাইয হওয়া আপ্স ক্লোজ হয়ে যায় । তার ফলে আমাদের অনেক প্রবলেম এ পরতে হয়। কিন্তু এই ভার্সন টিতে রয়েছে  আলাদা বাটারি সেভিং সুবিধা যেটি দিয়ে আপনার ফোন অটোমেটিক কিছু সময় পর পর স্টান্ড বাই মুড এ চলে যাবে এবং বাকগ্রাউন্ড এ থাকা আপ্স ও ডিলিট হবে না। এতে করে বাটারি অনেক কম খরচ হবে।

এটির ইউএসবি সি টাইপ সমরথন করে তাই আপনি খুব দ্রুত আপনার ফোন টিকে চার্জ অথবা ডাটা ট্র্যান্সফার করতে পারবেন।

Privacy & Security-

আপডেট এই সুবিধা তা আমার খুব ভাল লেগেছে। এখন দিনে দিনে ব্লাক হ্যাট পরা সাইবার ভুত বেশি তাই তো আপনি সহজে পারবেন যেকোন আপ্স এর যেকোন ধরনের ফিচার বন্দ করে দিতে। ধরুন আপনি স্কাইপি তে কামেরা পারমিশন ডেনি করে দিলেন। অথবা গুগল প্লে স্টর এর নেট কানেকশন ডেনি করে দিলেন। তাহলে স্কাইপি কামেরা এবং গুগল নেট ইউজ করতে পারবে না।

আর এখানে ললিপপ এর চেয়ে আডভাঞ্চ আপস পারমিশন ব্যবহার করা হয়েছে। তার জন্য আরো কিছু সুবিদা আছে। ব্যবহার করলেই বুজতে পারবেন।

ধরুন আপনি একজন বাংকে জব করেন আপনার ফোন টি আপনার সিক্রুইটি। আপনার কাছের লোক যদি আপনার রম টি পোর্ট করে অথবা যেকোন ভাবে কোন আপস বা মালওয়ার ইন্সটল করে দেয়। তাহলে তো আপনার সব যাবে।। সাথে চাকরি টাও।

তাই এতে যদি কোন মডিফাইড রম ইন্সটল করা হয় তাহলে সেটি আপনাকে ইনফ্রম করে দেওয়া হবে। সুধু রম না আপস থেকে আরো অনেক কিছু।

আর এর সবচেয়ে বর সুবিধা হলো এতে ফিঙ্গার প্রিন্ট সেন্সর ব্যবহার করা যাবে।

Android Runtime (“ART”)-

এটি বড় আপস রান করতে সক্ষ্ম। এবং রাম খুব কম যায়গা দখল করে আপস গুলো রান করালে। এটি বিশেস সুবিদা জারা ৫১২ এবং ১ জিবি রাম ব্যবহার করেন।

System usability improvements-

এটি তে ইজি ভাবে টুগল এবং কনফিগার করতে পারবেন। আপস লিঙ্ক অটো মেটিক হান্ডেল করবে কুইক সেটিং আপনাকে আর ডিস্টার্ব করবে না।

আপনি যদি ১৫ মিনিট কোন কল রিসিভ না করেন। তাহলে আপনাকে কল টি ব্লক করার একটি অপশন দেখাবে।

এটিতে আপনি অটোমেটিক যেকোন রুল সাবমিট করতে পারবেন।  আপনার ভলিওম কি টি ডিফল্ট ভাবেই গান পরিবর্তন নটিফিকেসন এবং যাদের কামের বাটন নেই সুট করতে পারবেন। এই এক ভলিওম কি দিয়েই।। এটি টে আপস ডাউনলোড করে মজা পাবেন ললিপপ এর চেয়ে বেশি।

Connectivity-

এটির ওয়াইফাই গরমস্পট ২.০ নেট সেয়ার গতি সিকিউর পাবেন। আর এর ব্লুটুত SAP এর সাহাজ্জে আপনি সহজে ডিভাইস থেকেই ফোন এ কল দিতে পারবেন।  (আন্ড্রয়েড ওয়ার আপডেট)

Expandable storage-

এটির যেকোন যায়গায় আপনি আপস ইন্সটল করতে পারবেন। লো আপস এর কোন কারন নাই।

Android for Work –

এটি ছোট সুবিদা হলেও খুব প্রয়জনিও আপনার ফোন এ কেউ কল দিলে। নাম্বার টির সব মেসেজ। এর আগে কতোবার কল করেছেন সব দেখা যাবে।

আপনি কাজ কাজ করতে করতে সেট টি লক করলে লক খোলার সময় অই খান থেকেই আসবে। ঝামেলা করতে হবে না।

আর আপনি নিজেই এই ফোন থেকে ছোট ভিপিএন নেটওয়ার্ক লাইন করতে পারবেন। আর ভিপিএন ব্যবহার করতে পারবেন।

প্রয়োজনীয় হলে পোস্টটি শেয়ার করুন।
ধন্যবাদ, itdoctor24.com এর সাথেই থাকুন।

Please comment Here (ভাল লাগলে কমেন্ট করুন)