৯০ শতাংশ জিমেইল ব্যবহারকারীর নিরাপত্তা দুর্বল কারন কি কি দেখেন

0
440

বিশ্বজুড়ে দিন দিন সাইবার হামলা বাড়লেও গুগলের ই-মেইল সেবা জিমেইল ব্যবহারকারীদের শতকরা ১০ ভাগেরও কম টু-ফ্যাক্টর অথেনটিকেশন বা দুই ধাপের নিরাপত্তাব্যবস্থা ব্যবহার করছে। যেটিকে অনলাইন অ্যাকাউন্ট নিরাপত্তার সবচেয়ে কার্যকর মাধ্যম মনে করা হয়। এর অর্থ দাঁড়ায়, প্রায় ৯০ শতাংশ জিমেইল ব্যবহারকারী সাইবার হামলাকারীদের থেকে নিরাপদ নয়।

গুগলের প্রকৌশলীদের মতে, দুর্বল পাসওয়ার্ড হ্যাকারদের জন্য যেকোনো অ্যাকাউন্টের দখল নেওয়া সহজ করে দেয়। এ জন্যই যেকোনো ব্যবহারকারী বিশেষ করে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কর্মরত ব্যক্তিদের যত তাড়াতাড়ি সম্ভব টু-ফ্যাক্টর অথেনটিকেশন চালু করা উচিত। কারণ তাঁদের অ্যাকাউন্টের সঙ্গে প্রতিষ্ঠানসহ অন্যান্য কর্মকর্তা ও গ্রাহকের বিভিন্ন তথ্যের সম্পর্ক রয়েছে। গুগলের নিরাপত্তাবিষয়ক প্রকৌশলী গ্রেজগর্জ মিল্কা এক উপস্থাপনায় বলেন, আমেরিকায় মাত্র ১২ শতাংশ ব্যবহারকারী তাদের অ্যাকাউন্টের নিরাপত্তার জন্য পাসওয়ার্ড ম্যানেজার ব্যবহার করে।

গুগলের এই সুবিধা দুই ধাপে কাজ করে। এটি কাজ করে একটি কোডের মাধ্যমে। যে কোডটি খুদে বার্তা বা অথেনটিকেশন অ্যাপের মাধ্যমে পাওয়া যাবে। এ ছাড়া মুঠোফোনে পপআপ বা আগে থেকে সংরক্ষণ করা কোডের মাধ্যমেও প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন করা যায়। মূলত অ্যাকাউন্টে ঢোকার জন্য পাসওয়ার্ড দেওয়ার পর বাড়তি এই ধাপের মাধ্যমে যাচাই করে নেওয়া হয়।

গুগল টু-ফ্যাক্টর অথেনটিকেশন সুবিধাটি প্রথম চালু করে ২০১১ সালে। অনেকটা সময় পার হওয়া সত্ত্বেও ব্যবহারকারীদের মধ্যে টু-ফ্যাক্টর অথেনটিকেশন ব্যবহার করার প্রবণতা একেবারেই কম। যদিও টু-ফ্যাক্টর অথেনটিকেশনে অ্যাকাউন্টে ঢুকতে বাড়তি কয়েক সেকেন্ড সময় লাগে, কিন্তু সাইবার হামলা থেকে অ্যাকাউন্ট নিরাপদ রাখার এটিই সবচেয়ে কার্যকর ও সহজ উপায়।

Please comment Here (ভাল লাগলে কমেন্ট করুন)