আউটসোর্সিং এর যেকোনো কাজ ফ্রিতে শিখতে এবং অনলাইন আরনিং সম্পর্কে A to Z জানতে এই টিউনটি হতে পারে আপনার কাছে সেরা টিউন

0
468

সবাইকে আমার এই খুবই সাধারন টিউনে স্বাগতম। আমি আজকে ফ্রিল্যান্সিং এর নাড়ি থেকে নক্ষত্র সবই আলোচনা করবো। ফ্রিল্যান্সিং এ আমরা বাংলাদেশ থেকে কি কি কাজ করলে ভালো হয় এবং কোন কোন কাজ করলে অনেক বেশি ইনকাম করা যাবে, কার জন্য কোন কাজ করলে ভালো হবে সেটা নিয়ে আমি বিস্তারিত আলোচনা করবো। আপনি যদি টিউনটি সম্পূর্ণ পড়েন তাহলে হতে পারে আপনার জন্য সঠিক কাজটির দিক নির্দেশনা এখানে পেয়ে যেতে পারেন।

অনলাইনে বাংলাদেশ থেকে কোন কোন কাজ করলে আপনি একটি ভালো ক্যারিয়ার গড়তে পারবেন এবং অনেক ভালো ইনকাম ও করতে পারবেন তার একটা লিস্ট আমি নিচে দিচ্ছিঃ

  • ১। ওয়েব ডিজাইন & ডেভলপিং
  • ২। গ্রাফিক্স ডিজাইন
  • ৩। ইউটিউব
  • ৪। অনলাইন মার্কেটিং
  • ৫। ব্লগিং

যদিও অনলাইনে প্রায় ৫০০ এর বেশি টাইপের কাজ আছে কিন্তু আমি সবসময় সবাইকে এই ৫ টাইপের কাজ করার জন্য সাজেস্ট করি। কারণ অন্য কাজ গুলা করা মানে টাইম নষ্ট। সাধারণত সবাইকে বলতে শোনা যায় যে, “কোন কাজ টি করলে আমার জন্য ভালো হবে, কিভাবে কোথা থেকে শিখবো, কোথা থেকে কাজ পাবো,” এই টাইপের অনেক প্রশ্ন সব সময় শুনতে হয়। আজ আমি এই টিউনে সব প্রশ্নের উত্তর দেয়ার চেষ্টা করবো। ধারাবাহিক ভাবে প্রতিটি কাজ নিয়ে নিচে আলোচনা করলামঃ

১। ওয়েব ডিজাইন & ডেভলপিংঃ

ফ্রিল্যান্সিং এ ওয়েব ডিজাইন টার স্থান টা সবার উপরেই রাখতে হবে। কারণ প্রথম থেকে এখন পর্যন্ত এটার চাহিদা অনেক বেশি। কাজ ভালো পারলে অনেক টাকা ইনকাম করা যায়। অনেক ডেভেলপার আছে যারা প্রতি সপ্তাহে ১/২ টি কাজ করে ৫০০-৭০০ ডলারের বেশি ইনকাম করে। আর একটা বড় সুবিধা হল ওয়েব ডেভেলপার রা ফ্রিল্যান্সিং না করেও যেকোনো আইটি ফার্ম এ কোনো সার্টিফিকেট ছাড়ায় ৪০-৫০ হাজার টাকা বেতনের জব করতে পারে। আপনার কাজ হলো শুধু কাজ টি ভালো ভাবে শেখা।

শিখবেন কোথা থেকেঃ

  • udemy (free course)
  • Learncode.academy (YouTube channel)
  • Stackoverflow (ask here any question)

কাজ পাবেন কোথায়ঃ

  • upwork
  • freelancer
  • fiverr
  • any IT firm in Bangladesh

২। গ্রাফিক্স ডিজাইনঃ

এবার আসি গ্রাফিক্স ডিজাইন নিয়ে। এটা একটি ক্রিয়েটিভ কাজ। সবাই করতে পারেনা। তবে যারা করতে পারে তারা প্রতিমাসে হিউজ ইনকাম করে। যদিও গ্রাফিক্স ডিজাইনের কোর্স গুলার রেট টা অনেক বেশি, তবে সমস্যা নেই। আমি নিচে কিছু ফ্রি রিসোর্স দিচ্ছি। সেখান থেকে ফ্রি শিখতে পারবেন। বর্তমানে গ্রাফিক্স ডিজাইন এর চাহিদা টা ওয়েব ডিজাইনের থেকেও বেশি। অনেক টাইপের গ্রাফিক্স এর কাজ আছে। যেমন, ব্যানার ডিজাইন, ৩ডি, গেম, লোগো ডিজাইন, এরকম হাজারও গ্রাফিক্স ডিজাইন এর কাজ আছে যেগুলার ভ্যালু অনেক বেশি। গ্রাফিক্স ডিজাইন এর বাজার সম্পরকে আমার ধারনা একটু কম। কিন্তু যত টুকু জানি সেটা নিচে দিয়ে দিলাম।

শিখবেন কোথা থেকেঃ

  • Alison (free course)
  • GFX (Youtube channel)
  • Atique Ullah (Bangla youtube channel)

কাজ পাবেন কোথায়ঃ

  • upwork
  • freelancer
  • fiverr
  • Graphicriver
  • 99designs
  • DesignCrowd
  • Designhill

৩। ইউটিউব:

ইউটিউব নিয়ে আমার মনে হয় নতুন করে কিছু বলার নেই। সবাই এটা নিয়ে কম বেশি জানে। আপনাকে শুধু জানতে হবে যে, কিভাবে খুব ভালো মানের ভিডিও ক্রিয়েট করতে হবে এবং ভিডিও র ভিউ কিভাবে বাড়াতে হবে। টুকটাক ভিডিও এডিটিং জানলে এবং টুকটাক সোশ্যাল মার্কেটিং জানলে ইউটিউবে খুব সহজেই প্রচুর ইনকাম করা যায়। বলা যায়, অনলাইনে কম পরিশ্রমে আনলিমিটেড ইনকাম করা যায় একমাত্র ইউটিউব থেকে। ইউটিউব সম্পর্কে টুকিটাকি সব কিছু জানতে হিন্দি ইউটিউব চ্যানেলঃ My Smart Support ফলো করতে পারেন। আমি মুলত এই চ্যানেল থেকে অনেক কিছুই শিখেছি। এবং যারা কম সময় খরচ করে অনেক বেশি ইনকাম করতে চান তাদেরকে আমি সব সময় ইউটিউবে কাজ করতে সাজেস্ট করে থাকি।

৪। অনলাইন মার্কেটিংঃ

অনলাইন মার্কেটিং এর সংজ্ঞা টা অনেক বড়। আসলে অনলাইন আরনিং এর প্রায় সব কাজই অনলাইন মার্কেটিং এর সাথে রিলেটেড। তবে সাধারণত অনলাইন মার্কেটিং বলতে আমরা যে বিষয় গুলা জানি তা হলোঃ অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং, সিপিএ মার্কেটিং, সোশ্যাল মার্কেটিং সহ আরো অনেক টাইপের মার্কেটিং। অনলাইন মার্কেটিং ২ ভাবে করা যায়ঃ ফ্রি মেথড এবং পেইড মেথড। যাদের অনেক টাকা আছে এবং অনলাইনে বিজনেস করতে চান তারা পেইড মেথডে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করতে পারেন। অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং পেইড মেথডে করলে কোনও কিছু শেখার দরকার হয়না এবং প্রচুর লাভ আসে। কিন্তু ফ্রি মেথডে কাজ করলে একটু বেশি পরিশ্রম করতে হয় এবং অনেক কিছু শিখতে হয়। যারা ফ্রি মেথডে কাজ করতে চান তাদের জন্য সব থেকে ভাল রিসোর্স হলঃ Web Trainings Academy (Youtube channel)।

৫। ব্লগিংঃ

ব্লগিং টা খুবই সাধারন একটা ব্যাপার। প্রথমে একটা ডোমেইন কিনতে হবে, এরপর সাইটে ইউনিক লেখালেখি করতে হবে, অ্যাড প্রোগ্রাম থেকে অ্যাড লিঙ্ক নিয়ে এসে সাইটে বসাতে হবে, তারপর নিজের সাইট টাকে মার্কেটিং করতে হবে। সাইটে যত ভিজিটর আসবে অ্যাড প্রোগ্রাম থেকে তত ইনকাম আসবে। ব্লগিং করার প্রসেস টা সহজ কিন্তু কাজ করা কঠিন। এখানে কোনও টেকনিক্যাল ব্যাপার নেই কিন্তু অনেক পরিশ্রম করতে হয়। ইউনিক আর্টিকেল লেখা টা যেমন কঠিন তেমন সাইটে প্রতিদিন ভিজিটর আনাটা আরো কঠিন কাজ। এই দুইটা কাজ যদি আপনি করতে পারেন তাহলে প্রতিমাসে প্রচুর ইনকাম করতে পারবেন।

সবশেষে বলতে চাই, অন্যান্য কাজের মত অনলাইনে কাজ করাটাও অনেক কষ্টের। তবে ধৈর্য ধরে করলে এখান থেকে প্রতি মাসে লাখ লাখ টাকা ইনকাম করাটা খুব কঠিন কোনও ব্যাপার না। সো কষ্ট করতে থাকেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here