আবারও সাইবার হামলার শিকার বিশ্বের ৮ দেশ। ।এবার গোল্ডেন আই এটাক

0
458

ইউক্রেন থেকে শুরু হওয়া বড় আকারের সাইবার আক্রমণ নরওয়ে থেকে ভারত পর্যন্ত পৌঁছে গেছে। বিবিসি জানিয়েছে, ইউক্রেন ছাড়াও রাশিয়া, ব্রিটেন, ডেনমার্ক, স্পেন, ফ্রান্স, নরওয়ে ও ভারতসহ বিশ্বের ৮টি দেশের বিভিন্ন কোম্পানি ও প্রতিষ্ঠানের কম্পিউটার ব্যবস্থা সাইবার হামলায় আক্রান্ত হয়েছে। কিছু কিছু কোম্পানি তাদের কম্পিউটারের পর্দার ছবি প্রকাশ করেছে যাতে দেখা যাচ্ছে হ্যাকাররা তাদের হাত থেকে মুক্তির বিনিময়ে বিটকয়েন দিয়ে বিভিন্ন অংকের অর্থ দাবি করছে।

বিবিসি জানিয়েছে, আক্রান্ত কোম্পানিগুলোর মধ্যে আছে ডেনমার্কের শিপিং প্রতিষ্ঠান মেরস্ক, রুশ তেল কোম্পানি রসনেফট ও পৃথিবীর বৃহত্তম বিজ্ঞাপনী সংস্থা ব্রিটেনের ডব্লিউপিপি। এছাড়াও আক্রান্ত হয়েছে স্পেন ও ফ্রান্সের কয়েকটি বহুজাতিক ও নির্মাণ কোম্পানি। ইউক্রেনে সাইবার হামলা ছিল অত্যন্ত গুরুতর যাতে সরকারি মন্ত্রণালয়, বিদ্যুৎ কোম্পানি, ব্যাংক ও কিয়েভের বিমানবন্দর আক্রান্ত হয়।

‘গোল্ডেন আই’ বা ‘পেটিয়া’ নামের এক ভাইরাস এবার হামলা চালাতে পারে গোটা ইউরোপে। মঙ্গলবারই এ বিষয়ে সতর্ক করেছে সুইস সরকারের এক তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থা। ভাইরাসের আক্রমণে ভারতে প্রভাব পড়েছে দেশের সব থেকে বড় কন্টেইনার বন্দর মুম্বাইয়ের জওহরলাল নেহরু পোর্ট ট্রাস্টের একটি টার্মিনালে। বন্ধ হয়ে গেছে ওই টার্মিনালের কাজকর্ম। এই ভাইরাস হানায় বিপর্যস্ত হয়েছে এপি মোলার-মায়ের্সক সংস্থা। ওই সংস্থার জেএনপিটির গেটওয়ে টার্মিনালের কাজকর্ম পরিচালনা করে। ফলে টার্মিনালের কাজ ব্যাহত হয়েছে বলে জানিয়েছে জেএনপিটি। এই কোম্পানির নিয়ন্ত্রণে রয়েছে ১৮ লাখ কন্টেইনার। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রের খবরে জানা গেছে, আপাতত ম্যানুয়ালি কাজ করে বন্দরের কাজকর্ম স্বাভাবিক রাখার চেষ্টা করা হচ্ছে।

নতুন এই হামলার শিকার হয়েছে রাশিয়ার তেল কোম্পানি, ইউক্রেনের রাষ্ট্রীয় বিদ্যুৎ কোম্পানি ও রাজধানী কিয়েভের প্রধান বিমানবন্দর। তারাই মূলত হামলার বিষয়টি প্রথম প্রকাশ করে।

সুইডেনের তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থা জানিয়েছে, ইউক্রেন, রাশিয়া, পোলান্ড, ইতালি, জার্মানি, ফ্রান্স, যুক্তরাষ্ট্র, ইংল্যান্ড এবং ভারতেও এই ‘পেটিয়া’ হামলা চালাতে পারে। র‌্যানসমওয়্যার পেটিয়া আবারও তথ্যপ্রযুক্তিকে ক্ষতিগ্রস্ত করতে পারে। সার্ভার মেসেজ ব্লককে ব্যাপকভাবে ক্ষতি করছে এই পেটিয়া। তবে এই পেটিয়ার প্রভাবে সুইস তথ্যপ্রযুক্তি কোনোভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে কিনা তা জানা যায়নি। পরিস্থিতির দিকে নজর রাখছে সুইস সরকার। ইতোমধ্যেই রাশিয়ার এক তেল উৎপাদক সংস্থা রসনেফেটেতে সাইবার হামলা হয়েছে। সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, মঙ্গলবার তাদের সিস্টেমে বড় ধরনের সাইবার হামলা হয়েছে। ইউক্রেনেও বেশ কিছু পরিষেবা এই হামলার জেরে ব্যাহত হয়েছে। ২০১৬ সালে প্রথম এই ভাইরাসের হামলা হয়েছিল বলে জানা গেছে। সূত্র : বিবিসি,

Please comment Here (ভাল লাগলে কমেন্ট করুন)